আজ মানববন্ধন অ্যাসিডদগ্ধ আকলিমার অবস্থা আশঙ্কাজনক

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০৩:২৮, জানুয়ারি ১৫, ২০১৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটেAcid_New_Logo_ চিকিৎসাধীন আকলিমা আক্তারের (৩৮) অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক। গত শুক্রবার দুপুরে পূর্ব নাখালপাড়ায় স্বামী আবদুল কুদ্দুসের ছোড়া অ্যাসিডে তাঁর শরীরের ১৫ শতাংশ ঝলসে যায়। গতকাল শনিবার বিকেল পর্যন্ত অ্যাসিড নিক্ষেপকারীকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।
জড়িত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার ও তাঁর শাস্তির দাবিতে অ্যাসিডদগ্ধ নারীদের জন্য প্রথম আলো সহায়ক তহবিলের উদ্যোগে একটি মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছে। আজ রোববার বিকেল চারটায় নাখালপাড়া হোসেন আলী স্কুলের সামনে মানববন্ধনটি হবে। এতে অংশ নিতে আয়োজকদের পক্ষ থেকে সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
ঘটনা সম্পর্কে আকলিমার ছোট ভাই ইমানুর রহমান বলেন, তিন ছেলেসহ আকলিমা-কুদ্দুস দম্পতি পূর্ব নাখালপাড়ার একটি বাসায় ভাড়া থাকেন। ঘটনার সময় বাসায় কেউ ছিল না। কুদ্দুস বাসার বাইরে থেকে এসে আকলিমার ওপর অ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যান। তিনি বলেন, ১৯ বছর আগে পারিবারিকভাবে এই দম্পতির বিয়ে হয়। বিয়ের সময় কুদ্দুস একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। কিছুদিন পর তিনি মাদকে আসক্ত হন ও জুয়া খেলা শুরু করেন। পোশাক কারখানার কাজও ছেড়ে দেন। তিন বছর আগে মালয়েশিয়া গিয়েছিলেন কুদ্দুস। আট মাস জেল খেটে দেশে ফিরেছেন। এখন তিনি বেকার।
ইমানুর রহমান বলেন, তেজগাঁওয়ের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন আকলিমা। সেখান থেকে মাসে ১০-১৫ হাজার টাকা আয় হয়। এই আয়ে চলে সংসার। তাঁর অভিযোগ, টাকার জন্য মাঝেমধ্যেই সন্তানদের সামনেই আকলিমাকে মারধর করতেন কুদ্দুস। এবার অ্যাসিডে শরীর ঝলসে দিয়েছেন।
আকলিমার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল বলেন, আকলিমার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর মুখ, হাত ও বুক অ্যাসিডে ঝলসে গেছে।
এ ঘটনায় শুক্রবার তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় আবদুল কুদ্দুসকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে। মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রশিদ বলেন, আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।