তিন জেলায় ৩০০ কম্বল পেল শীতার্ত মানুষ

প্রথম আলো ডেস্ক | আপডেট: ০২:১১, জানুয়ারি ২২, ২০১৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

   প্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে গতকাল খাগড়াছড়ি শহরে দরিদ্র্য শীতার্ত লোকজনের হাতে কম্বল তুলে দেওয়া হয় l ছবি: প্রথম আলোপ্রথম আলো ট্রাস্টের উদ্যোগে তিন জেলায় ৩০০ শীতার্ত মানুষকে কম্বল দেওয়া হয়েছে। খাগড়াছড়ি সদর ও পটুয়াখালীর বাউফলে এক্সিম ব্যাংকের এবং বরিশালের বাকেরগঞ্জে ঢাকা ব্যাংকের সহযোগিতায় এসব কম্বল দেওয়া হয়। কম্বল বিতরণে সহায়তা করেন প্রথম আলো বন্ধুসভার সদস্যরা।

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি জানান, খাগড়াছড়ি সদর, মহালছড়ি, পানছড়ি ও মানিকছড়িতে গত তিন দিনে ১০০টি কম্বল বিতরণ করা হয়। সদরের অরুণিমা কমিউনিটি সেন্টারে গতকাল শনিবার ১০টি গ্রামের ৬০ জন শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। এসব কম্বল তুলে দেন রাঙামাটি সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক রাশিদুল ইসলাম, আইনজীবী জসিম উদ্দিন মজুমদার, বন্ধুসভার সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, সহসভাপতি প্রভাত তালুকদার ও বন্ধুসভার সদস্য মো. ইসরাফিল খন্দকার।

গত শুক্রবার পানছড়ি উপজেলার দুর্গম এলাকায় ১৫টি ও মানিকছড়ি উপজেলায় ৫টি কম্বল বিতরণ করা হয়। মানিকছড়ি উপজেলায় কম্বল বিতরণ করেন সাংবাদিক চিংমেপ্রু মারমা। কম্বল বিতরণে সহায়তা করেন বন্ধুসভার সদস্য আমিনুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, আরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, সবুজ ও চিকিৎসক শহীদ উল্লাহ।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে মহালছড়ি উপজেলায় মাইচছড়ি প্রজ্ঞাবংশ শিশু সদনে অনাথ শিশুদের মাঝে ২০টি কম্বল তুলে দেন শিশু সদনের মংশি মারমা।

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, গতকাল বাউফল উপজেলার ধানদী, নিমদী, দাসপাড়া, চন্দ্রপাড়া, বাউফল পৌরসভার কাগুজিরপুল, মুসলিমপাড়া ও বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সড়ক এলাকার ১০০ জন শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল বিতরণ করা হয়। সকালে শহরের মুসলিমপাড়া সড়কের বাউফল পৌরসভার মেয়র মো. জিয়াউল হক জুয়েলের বাসভবনের সামনে শীতার্ত প্রতিবন্ধী, অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত নারী-পুরুষের হাতে এসব কম্বল দেওয়া হয়।

কম্বল বিতরণের সময় অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন বাউফল সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বাউফল রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি কামরুজ্জামান বাচ্চু, যায়যায়দিন-এর বাউফল প্রতিনিধি কামরুল হাসান, কাউন্সিলর সামসুন্নাহার রিপা ও মোসা. রিনা বেগম প্রমুখ।

বরিশাল অফিস জানায়, বাকেরগঞ্জ উপজেলার ৫ নম্বর দুর্গাপাশা ইউনিয়নের দুর্গাপাশার চর এবং একই এলাকার নদীভাঙনকবলিত শীতার্ত মানুষের মাঝে ১০০ কম্বল দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে দুর্গাপাশার চর, সেনের বাজার এবং ভাঙনকবলিত এলাকায় শীতার্ত লোকদের হাতে এসব কম্বল তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেন দুর্গাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল বাশার সিকদার, ইউপি সদস্য মো. জাকির হোসেন, সেনের বাজার পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা সুনীল চন্দ্র রায়, বাকেরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয়ের কর্মকর্তা মো. এনামুল হক, পাটকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সাঈদুর রহমান, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য ফরিদউদ্দিন খান, শারমিন আক্তার, অমিত হাসান অভি প্রমুখ। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো বন্ধুসভার ফারজানা আক্তার, আশরাফুর রহমান, আছিবুর রহমান, রোকন ব্যাপারী, স্বপ্না আফজাল, অহিন কুমার পাল, আকলিমা খানম, শামরী রহমান ও মুনিয়া রহমান।