নিপীড়িত সাংবাদিকের পাশে

তথ্যের মুক্ত পরিবেশনার পথ এ দেশে এখনো কণ্টকাবৃত। কিন্তু গণতন্ত্র ও উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে হলে মানুষের কাছে তথ্য পৌঁছাতেই হবে। তাই এ কর্তব্য পালন করতে গিয়ে যাঁরা নির্যাতিত হন, তাঁদের পাশে দাঁড়ানো প্রথম আলো একটি দায়িত্ব বলে মনে করে।

ফেনীর তত্কালীন সাংসদ জয়নাল হাজারীর হামলায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন সাংবাদিক টিপু সুলতান। তাঁর চিকিত্সার জন্য প্রথম আলো ও ডেইলি স্টার-এর সাংবাদিক-কর্মীরা এক দিনের বেতন দিয়ে গড়ে তুলেছিলেন একটি তহবিল। ৭ এপ্রিল ২০০১ সালে গঠিত সেই তহবিলে দেশ-বিদেশ থেকে জমা পড়ে প্রায় ২৭ লাখ টাকা। ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ৮বার অস্ত্রোপচারের পর সুস্থ হয়ে টিপু দেশে ফেরেন।

‘নির্যাতিত সাংবাদিক সহায়তা তহবিল’ নামে এটি আনুষ্ঠানিক রূপ পায় ৯ মার্চ ২০০৬ সালে। নিপীড়িত সাংবাদিকদের সহায়তা দেওয়ার জন্য গড়ে তোলা হয় এ তহবিল। এর প্রথম সহায়তা পায় খুলনার সাংবাদিক নহর আলীর অসহায় পরিবার।