মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা সন্তান মাদকাসক্ত হলে চিকিত্সা করান

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০১:১০, এপ্রিল ২৪, ২০১৬ |

রাজধানীর ধানমন্ডির ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে গতকাল প্রথম আলো ট্রাস্টের মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠানে (বাঁ থেকে) জিল্লুর রহমান খান, সুলতানা আলগিন, মোহিত কামাল, ব্রাদার রোনাল্ড ড্রাহোজাল, ফারজানা রহমান ও ফারজানা রাবিন l ছবি: প্রথম আলো

মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠানে এক অভিভাবক জানালেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার একটা সময়ে তাঁর একমাত্র ছেলে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। ওই অবস্থায় কী করবেন, ভেবে পাচ্ছিলেন না। এক আত্মীয়ের সঙ্গে একদিন প্রথম আলোর মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠানে এসেছিলেন তিনি। তারপর বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ ও চিকিত্সা নিয়ে ছেলে সুস্থ হন। তিনি বলেন, সেই সময় থেকে ভালো থাকার জন্য নিজের তাগিদে পরামর্শ অনুষ্ঠানে নিয়মিত আসি। অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘সন্তান মাদকাসক্ত হলে হতাশ হবেন না, চিকিত্সা করান।’
প্রথম আলো ট্রাস্ট মাদকবিরোধী আন্দোলনের উদ্যোগে রাজধানীর ধানমন্ডির ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে গতকাল শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তার ৭০তম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ওই অভিভাবক এ কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে মাদকাসক্ত ব্যক্তি ও তাঁদের অভিভাবকদের কাছ থেকে বিভিন্ন সমস্যা শুনে পরামর্শ দেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক মোহিত কামাল, সহকারী অধ্যাপক ফারজানা রহমান, জিল্লুর রহমান খান, হলিফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ফারজানা রাবিন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সুলতানা আলগিন ও আপনের নির্বাহী পরিচালক ব্রাদার রোনাল্ড ড্রাহোজাল।
আলোচকেরা বলেন, কোনো ব্যক্তি ঘুমের ওষুধ ও সিগারেটের পথ ধরে নেশায় জড়িয়ে পড়তে পারে। অনেকের ভুল ধারণা রয়েছে, বিয়ে দিয়ে দিলে মাদকাসক্তি সেরে যাবে। সন্তানদের সঙ্গে এমন সম্পর্ক গড়তে হবে, যাতে তারা মা-বাবাকে সবকিছু খুলে বলতে পারে।
প্রতি মাসে মাদকাসক্ত ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন প্রথম আলো ট্রাস্টের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফেরদৌস ফয়সাল।