সন্তানকে ভালো রাখতে তাঁরা পরামর্শ অনুষ্ঠানে আসেন

DRUG-LOGO-SIGNALনিজস্ব প্রতিবেদক | জানুয়ারি ১৭, ২০১৬ |

প্রথম আলো ট্রাস্ট মাদকবিরোধী আন্দোলনের উদ্যোগে মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা অনুষ্ঠানে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক মা বলেছেন, ‘আমার ছেলে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েটে) প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়ে খারাপ বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। এই খবর জেনে আমরা দিশেহারা হয়ে পড়ি। লজ্জায় কাউকে বলতেও পারছিলাম না, আবার ওদিকে ছেলেটা গোল্লায় যাচ্ছে। এমনই অবস্থায় প্রথম আলোর মাদকবিরোধী পরামর্শ অনুষ্ঠানে আসি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে এখন ছেলে সুস্থ, চতুর্থ বর্ষে পড়ছে। সেই থেকে সন্তানকে ভালো রাখার জন্য নিজের তাগিদেই পরামর্শ অনুষ্ঠানে নিয়মিত আসি।’
গতকাল শনিবার বিকেলে মাদকবিরোধী পরামর্শ সহায়তা-৬৭ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ধানমন্ডির ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে প্রথম আলো ট্রাস্ট। প্রথম আলো ট্রাস্টের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফেরদৌস ফয়সালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মাদকাসক্ত ব্যক্তি ও তাদের অভিভাবকদের কাছ থেকে বিভিন্ন সমস্যা শুনে পরামর্শ দেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক মোহিত কামাল, সহকারী অধ্যাপক অভ্রদাশ ভৌমিক, মো. জিল্লুর রহমান খান, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ফারজানা রাবিন ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আপনের নির্বাহী পরিচালক ব্রাদার রোনাল্ড ড্রাহোজাল।
পরামর্শকেরা অভিভাবকদের উদ্দেশে বলেন, সন্তান কোথায় যাচ্ছে, কী করছে, কখন ফিরছে, প্রতিটি বিষয়ে বাবা-মাকে খোঁজ নিতে হবে। সন্তানেরা যাদের সঙ্গে মিশছে, তাদের সম্পর্কেও খোঁজ নিতে হবে। সন্তানদের সঙ্গে এমন সম্পর্ক গড়তে হবে, যাতে সন্তানেরা বাবা-মাকে সবকিছু খুলে বলতে পারে।
প্রতি মাসে মাদকাসক্ত ব্যক্তি ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি পরামর্শ সহায়তা হয়। চিকিৎসকেরা মাদকাসক্ত ব্যক্তির সঙ্গে একান্তে কথা বলে ব্যবস্থাপত্র দেন। চিকিৎসকেরা পৃথক টেবিলে বসে প্রতিজনকে ১২ থেকে ১৫ মিনিট করে সময় দেন। বিনা মূল্যে এই সেবা পেয়ে অভিভাবকেরা খুবই খুশি।
গতকালের অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো বন্ধুসভার জাতীয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সাইদুজ্জামান রওশন। আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, পরবর্তী আয়োজন ১৬ ফেব্রুয়ারি বিকেল সাড়ে চারটায় একই স্থানে অনুষ্ঠিত হবে।